লক্ষ্য রাখুন ব্রাউজারের বুকমার্ক লিস্ট যাতে হারিয়ে না যায়

নিয়মিত নেট সার্ফিং এখন প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে সংবাদপত্র পড়ার মতই নিয়ম হয়ে গিয়েছে। সার্ফিং শেষে ভাল এবং প্রয়োজনীয় সাইটগুলো আমরা ফেভারিট বা বুকমার্ক করে রাখি। আর এভাবেই দিনে দিনে আমাদের প্রিয় ও প্রয়োজনীয় সাইট গুলো বুকমার্কিং/ফেভারিট করার মাধ্যমে ব্রাউজারের ফেভারিট লিস্ট সমৃদ্ধ হয়ে উঠে। কিন্তু কেমন লাগবে যদি হঠাৎ করে এই লিস্ট হারিয়ে যায়! অবশ্যই খারাপ লাগার কথা….

মাঝে মাঝে সিস্টেম ক্র্যাশ করলে নতুন করে সিস্টেম সেটআপ দেয়া লাগে তখন আর এই ফেভারিট লিস্ট খুজে পাওয়া যায়না। অনেক সময় ফেভারিট লিস্টের ব্যাকআপ নিতেও মনে থাকেনা, এছাড়া অন্যান্য সমস্যার কারনেও এই বুকমার্ক/ফেভারিট লিস্ট হারিয়ে যেতে পারে। অনেকেই এখন অনলাইন বুকমার্কিং সাইট ব্যাবহার করে থাকলেও অনেকের এখনো এই অভ্যাস গড়ে উঠেনি। তাই যারা এখনো অনলাইন বুকমার্কিং সাইট ব্যাবহার করেননা তারা এখনি সতর্ক হোন!

নিচের ছোট্ট টিপসটি অনুসরন করে খুব সহজেই আপনার বুকমার্ক/ফেভারিট লিস্ট হারিয়ে যাওয়া থেকে রেহাই পেতে পারেন।
Internet Explorer ব্যবহারকারীদের জন্যে-

ইন্টারনেট এক্সপ্লরারের File মেনু থেকে Import and Export… সিলেক্ট করুন, এরপর Export to a file সিলেক্ট করে Next -এ ক্লিক করুন। তারপর Favorites সিলেক্ট করে আবার Next। এবার Favorites ফোল্ডার সিলেক্ট করে Next চাপুন। তারপর আপনার বুকমার্ক লিস্টটি যেখানে সেভ করতে চান, সেই লোকেশান সিলেক্ট করে Export -এ ক্লিক করুন।

এভাবে আপনার ব্রাউজারের বুকমার্ক লিস্টটি bookmark.htm ফাইল আকারে সেভ হবে। সেভ করার পরে ফাইলটি আপনার কম্পিউটারের যে ড্রাইভে উইন্ডোজ আছে সেটি বাদে অন্য যেকোন ড্রাইভে নিরাপদে রেখে দিন।

এরপর যদি নতুন উইন্ডোজ সেটআপ বা অন্য কোন কারনে আপনার ব্রাউজারের বুকমার্ক লিস্টটি হারিয়ে যায় তাহলে সেটি ফিরে পেতে একইভাবে File> Import and Export…তারপর Import from a file সিলেক্ট করে Next চাপুন। তারপর Favorite সিলেক্ট করে আবার Next চাপুন। তারপর আপনার কম্পিউটারে সেভ করা bookmark.htm ফাইলের লোকেশানটি সিলেক্ট করে Next -এ ক্লিক করুন এরপর Favorite সিলেক্ট করে Import -এ ক্লিক করুন then Finish! দেখুন আপনার বুকমার্ক লিস্টটি ঠিক আগের মতই আছে।

হার্ডডিস্ক পাটিশন দেয়ার জন্য এখন উইন্ডোজ দেয়ার প্রয়োজন নেই

এখন থেকে পার্র্টশন দিতে পারবেন মাত্র এক মিনিটে। আর কোনো ঝামেলা বা সফটওয়্যার ছাড়া।এই পদ্ধতি সম্পূর্ন নিরাপদ।
নতুন ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ কম্পিউটার দেখা যায় ড্রাইভ থাকে মাত্র একটি বা দুটি। তাই অনেক সময় প্রয়োজন পড়তে পারে একাধিক ড্রাইভের। আসুন তৈরি করি একাধিক ড্রাইভ কোনো সফটওয়্যার ছাড়াই এবং আমাদের প্রয়োজন মিটিয়ে নিই।
প্রথমে My Computer-এ ডান বাটন ক্লিক করে Manage-এ যান।
এবার Disk Management-এ ক্লিক করুন।
যে ড্রাইভকে ভেঙে একাধিক ড্রাইভ করতে চান সেই ড্রাইভে ডান বাটন ক্লিক করে Shrink Volume-এ ক্লিক করুন।
কী আকারের ড্রাইভ বানাতে চান তা লিখুন।
এবার New volume-এ ক্লিক করুন।
এরপর Next-এ ক্লিক করে ড্রাইভ লেটার দিন।
ড্রাইভের নাম পরিবর্তন করতে চাইলে তা লিখুন এবং Next-এ ক্লিক করুন।
দেখুন আপনার ড্রাইভ তৈরি হয়ে গেছে।